কঠিন পরীক্ষা দিতে হবে-শামীম ওসমান

139

নারায়ণগঞ্জ-৪ আসলের এমওি শামীম ওসমান বলেছেন, রাজনীতিবিদদের কঠিন পরীক্ষা দিতে হবে। আমি জানি না এ পরীক্ষা দিতে গিয়ে বাঁচব কিনা। রাজনীতির মাঠে যার জন্ম, সে আমার বিপক্ষে হলেও আমি তাকে সম্মান করি। তবে উপর থেকে যারা পড়ে আমি জানি তাদের শেকড় নেই। আজকে এই ফুলের টব আমার ঘরে আছে, কাল অন্য কারও ঘরে গিয়ে শোভাবর্ধন করতে পারে। ইতিহাসে আমরা এটাই দেখেছি, ইতিহাস নির্মম।

শনিবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদ আয়োজিত স্বাধীনতার সূবর্ণ জয়ন্তী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দিতে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুকে হারিয়ে আমরা আমাদের কৈশর দেখিনি। আজ এ জেনারেশনকে কথা বলতে হবে। ১৯৮১ সাল থেকে ২০০১ পর্যন্ত এ হাত দিয়ে উনপঞ্চাশ জনকে আমরা দাফন করেছি। চাঁদমারিতে দেখবেন দুটো কবর আছে, আমাদের ছেলে মনির আর পাপ্পু। তাদের গুলি করা হয়েছিল, কারণ আমরা গণতন্ত্রের জন্য আন্দোলন করেছিলাম। তাদের কবরস্থানে নিতে পারিনি, তাদের লাশ থেকে সত্তরটা গুলি বের করেছিলাম। পরে সেখানে কবর দিয়েছি।

শামীম ওসমান বলেন, আমি দায়িত্ব নিয়ে বলতে চাই, আমি বেঁচে থাকি এবং রাজনীতি যত দূর বুঝি, সামনের সময়টা বঙ্গবন্ধুর সৈনিকদের জন্য সবচেয়ে বড় পরীক্ষা হতে যাচ্ছে। আমাদের এ দেশটাকে বাঁচাতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। আমাদের জীবন যৌবন কৈশর শেষ। শেখ হাসিনা এখন আওয়ামী লীগের সম্পদ নন, তিনি জাতির সম্পদ। আগে হৈ চৈ করতাম, কারণ আমাদের কাছে তিনি নেত্রী নন, তিনি মা। আমরা বলেছিলাম স্বপ্নপূরণ হয়েছে এখন ছেড়ে দেন। তিনি বলেছিলেন তেমাদের স্বপ্নপূরণ হয়েছে, আমার স্বপ্নপূরণ হয়নি। তিনি বলেন—আমার স্বপ্ন আমার বাবার স্বপ্ন। আমার স্বপ্ন সেদিন পূরণ হবে যেদিন কারও মাথার ওপর ছাদ ছাড়া থাকবে না। আপনারা তার জন্য দোয়া করবেন। সমস্ত ষড়যন্ত্র একসাথে শুরু হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, কেউ পারফেক্ট না, আন্তর্জাতিকভাবে যখন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ওপর কিছু করা হয়, সেটার পর যখন কেউ কেউ করতালি দেয় তখন আমাদের কাছে লজ্জা লাগে। তারা স্বপ্ন দেখে, ওরা এসে ক্ষমতায় বসিয়ে দিয়ে যাবে। শেখ হাসিনা এতিম, তার কেউ নেই। আমার মনে আছে আম্মার মৃত্যুর পরে আপা আমাকে ফোন দিলেন। আমি তখন বলেছিলাম আপা আজ বুঝলাম এতিম হওয়ার কষ্ট কতটুকু। আমার বাবা-মায়ের স্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে, এটাই মানতে পারি না। এ মহিলার কী আছে বলুন তো? তিনি কারও কাছে দুঃখ শেয়ার করতে পারেন না। তাই আপনাদের কাছে দোয়া চাই।

নিউজটি শেয়ার করুন...