কোথায় থেকে পেলো এতো গুলো কঙ্কাল-আলাউদ্দিন হাওলাদার

17
নিজস্ব প্রতিবেদক: নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লায় আওয়ামীলীগ নেতাদের সঙ্গে মিলে মসজিদের নির্মান কাজ বন্ধ করে আওয়ামীলীগকে কুলঙ্গার দল আখ্যায়িত করে ফেইসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছে এক যুবদল নেতা। এ নিয়ে ফতুল্লার কুতুবপুর এলাকায় বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সভা করেছে স্থানীয় আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা। সভায় আওয়ামীলীগকে নিয়ে কটুক্তিকারী সেই যুবদল নেতার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে কঠোর হুশিয়ারী দিয়েছেন বক্তারা।
মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) বিকেল হতে সন্ধা পর্যন্ত কুতুবপুরের শাহি মহল্লা এলাকায় স্থানীয় যুবলীগের আয়োজনে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় কুতুবপুর ইউনিয়ন ৫ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি মো: পলাশের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন কুতুবপুর ইউনিয়ন ৪, ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সখাপতি ও স্থানীয় ইউপি সদস্য আলাউদ্দিন হাওলাদার। এতে প্রধান বক্তা হিসাবে উপস্থিত ছিলেন জেলা যুবলীগের সদস্য এম ও এফ খোকন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন জেলা কৃষক লীগের দপ্তর সম্পাদক হুমায়ন কবির, স্থানীয় ৫ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি ডা: বিএম আনোয়ার, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক, স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা লিটন হাওলাদার, যুবলীগ নেতা সেলিম রেজা প্রমুখ।
সভায় প্রধান অতিথি আলাউদ্দিন হাওলাদার তার বক্তব্যে বলেন, পাগলা শাহি মহল্লা কবরস্থান ও মসজিদের নিচ তলায় তিনটি দোকান ঘর চেয়ে না পেয়ে কুতুবপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল খালেক মুন্সি ও ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক মীর হোসেন মিরু তাদের বাহিনীর লোকজন নিয়ে শনিবার মসজিদের নির্মান কাজ বন্ধ করে দেয়।
তাদের সঙ্গে বিএনপির নাশকতাকারীরাও মসজিদ নির্মান কাজ বন্ধে অংশ নেয়। এর মধ্যে জেলা যুবদলের সদস্য ফারুক ঐ দিনই তার ফেইসবুক একাউন্ট হতে আওয়ামীলীগ দলকে কুলঙ্গার সহ অশ্লিল ভাষায় মন্তব্য করে স্ট্যাটাস দিয়েছে। বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকার থাকা সত্বেও একজন যুবদল নেতা আওয়ামীলীগকে কুলঙ্গার দল হিসাবে আখ্যায়িত করে। সে এতো বড় সাহস পায় কোথায়। আওয়ামীলীগকে ভাল বাসে বলে স্থানীয় যুবলীগ বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সভার আয়োজন করে। তিনি আরো বলেন, যারা মসজিদের নির্মান কাজ বন্ধ করে দিয়েছে তাদের উদ্দ্যেশ্য কি? তারা মানববন্ধন করেছে এবং জনসাধারনের মাঝে মৃত ব্যক্তির কঙ্কাল নিয়ে এসেছে। কোথায় থেকে পেলো এতো গুলো কঙ্কাল। কাকে মেরে কঙ্কাল গুলো আনলো প্রশাসনের সদয় দৃষ্টি কামনা করছি। প্রশাসন যদি প্রশ্ন করেন কঙ্কাল গুলো কোথায় থেকে নিয়ে আসছে এবং জনসম্মুখে হাজির করে জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টি করছে।
এদিকে, আলাউদ্দিন হাওলাদারের অভিযোগের নিন্দা জানিয়েছেন কুতুবপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারন সম্পাদক আব্দুল খালেক ও স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মীর হোসেন মীরু। তাদের দাবি আলাউদ্দিন হাওলাদার যে অভিযোগ তুলেছে তা মিথ্যা এবং ভিত্তিহীন।

নিউজটি শেয়ার করুন...