সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ০১:৫২ পূর্বাহ্ন

নারায়ণগঞ্জে ওয়ালটনের ৬ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

প্রতারনার মাধ্যমে ১৬ লাখ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগে নারায়ণগঞ্জে ওয়ালটন কোম্পানীর ৬ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে ভুক্তভোগী এক ব্যবসায়ী। ঐ মামলায় তদন্ত করে ঘটনার সত্যতার পাওয়ার পর আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করে নারায়ণগঞ্জ জেলা পিবিআিই।

নারায়ণগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মোনালিসা সনি গত ৯ অক্টোবর এক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা এবং ৫ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে সমন জারি করে। ওয়ারেন্ট জারি হওয়া ওয়ালটনে কর্মকর্তা মাশরুব হাসান গত ১২ অক্টোবর বৃহস্পতিবার নারায়ণগঞ্জ আদালতে জামিন নিতে এলে তাকে কারাগারে পাঠায় আদালত। আজ রোববার উক্ত আসামীর জামিনের শুনানী রয়েছে বলে জানা গেছে। অপরদিকে বাদী পক্ষ উক্ত প্রতারকচক্রের আরো প্রতারনার কাহিনী বের করার জন্য রিমান্ডের নেয়ার অনুরোধ জানাবে।

মামলার সূত্রে জানা গেছে, নারায়ণগঞ্জের সোনারগায়ের কাঁচপুরে বিসমিল্লাহ ইলেকট্রনিক এন্ড ফার্নিচারের মালিক দেলোয়ার হোসেনের কাছ থেকে ডিলারশিপের নামে প্রতারনা করে ১৬লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছে ওয়ালটনের এডিশনাল অপ্রটিপ ডিরেক্টর মাশরুর হাসান, সিনিয়র ডেপুটি মো: সাইদুল ইসলাম, কর্মকর্তা শাহদাত হোসেন,মশিউর রহমান,মো: জুয়েল,মো: লালন হোসেন।
ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী দেলোয়ার হোসেন উক্ত আসামীদের বিরুদ্ধে নারায়ণগঞ্জ আদালতে মামলা দায়ের করার পর আদালত মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব দেয় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবি আই) নারায়ণগঞ্জ শাখাকে। পিবি আই নারায়ণগঞ্জ শাখার পুলিশ পরিদর্শক মোহাম্মদ সাইফুল আলম মামলাটি তদন্ত পর ঘটনা সত্যতা পেলে ওয়ালটনের ৬ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশীট দাখিল করেন।

মামলার বিবরনে বলা হয়,আসামীরা মামলার বাদী দেলোয়ার হোসেনকে ওয়ালটনের ডিস্টিভিউটর দেয়ার প্রস্তাব দেয়। এবং কোম্পানী থেকে মালামাল নেয়ার মাধ্যমে বিনিয়োগ করার জন্য উৎসাহিত করে। বাদী তার গোডাউন কোম্পানীর নামে বরাদ্দ দেয়। আসামীরা ওয়ালটন পন্য বাদীর নামে উত্তোলন করে বিভিন্ন ডিলার পয়েন্ট দেয়। ডিলার পয়েন্ট থেকে আসামীরা বিভিন্ন সময় যোগসাজশ করে মার্কেটে থাকা লাখ লাখ টাকা তুলে নিয়ে যায়। এবং বিভিন্ন স্থানে বদলি হয়ে যায়। বাদী দেলোয়ার হোসেন তার নামে মার্কেটে থাকা ১৬লাখ টাকা বুঝিয়ে দিতে বললে আসামীরা বাদীকে বিভিন্ন ভাবে ভয়ভীতি দেখায় । বাদী জানতে পারে আসামীরা ওয়ালটনের কর্মকর্তার হলেও তারা মুলত প্রতারনার মাধ্যমে মানুষের টাকা পয়সা হাতিয়ে নেয়ার কাজে দীর্ঘদিন ধরে লিপ্ত রয়েছে। পরে তিনি প্রতারকদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

ওয়ালটনের সাবেক সিনিয়র এসিসটেন্ট ডিরেক্টর নারায়ণগঞ্জ রিজিওনের সাবেক কর্মকর্তা সানোয়ার হোসেন (আইডি নং ১৯৪১৫) জানান, মাশরুর চক্র দেশের বিভিন্ন স্থানে প্রতারনা করে চলছে। তাদের কর্মকান্ডে ওয়ালটনের সুনামক্ষুন্ন হচ্ছে। কোম্পানীও এদের বিরুদ্ধে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহন শুরু করেছে। অনেককে চাকরি চ্যুত করে করেছে। তবে এপ্রতারক চক্র সারা দেশে তাদের জাল বিস্তার করেছে বলে তিনি অভিযোগ করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন...

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Recent Comments

    © All rights reserved © 2023
    Design & Developed BY M Host BD