রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৬:৩৬ পূর্বাহ্ন

নার্স ও ওয়ার্ড বয়দের পাশে দাঁড়ালেন সেলিম ওসমান

নারায়ণগঞ্জের খবর: করোনা রোগীদের চিকিৎসায় নিয়োজিত ডাক্তারদের পর এবার নার্স ও ওয়ার্ডবয়দের থাকা, খাওয়া এবং যাতায়াত সহ রোগীদের নমুনা সংগ্রহ থেকে শুরু করে ফলাফল আসা পর্যন্ত যাবতীয় ব্যবস্থা কর দিলেন নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান।

শনিবার ২৫ এপ্রিল বিকেল সাড়ে ৩টায় খানপুর ৩০০ শয্যা(করোনা) হাসপাতালের অদূরে নারায়ণগঞ্জ বার একাডেমী স্কুলে ব্যবস্থা করা তাদের আবাসন স্থল পরিদর্শন করে উদ্বোধন ঘোষণা করেন এমপি সেলিম ওসমান। গত ২৩ এপ্রিল তাঁর ব্যক্তিগত তহবিল থেকে ডাক্তারদের জন্য দেওয়া ২০ লাখ টাকা থেকে এ আবাসনের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

এ সময় এমপি সেলিম ওসমান সাংবাদিকদের বলেন, সাধারণ মানুষ আক্রান্ত হলে ডাক্তারের কাছে আসবে চিকিৎসা নিতে। নারায়ণগঞ্জেই সব থেকে বেশি ডাক্তাররা আক্রান্ত হয়েছে। তাই আগে করোনা রোগীদের সেবা দেওয়ার কাজে নিয়োজিত ডাক্তার এবং নার্সদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা দিতে হবে। তারা সুস্থ্য থাকলে সাধারণ মানুষদের সেবা দিতে পারবে। আমরা সেই চেষ্টা থেকেই সরকারের পাশাপাশি ব্যক্তিগত উদ্যোগে যা যা করনীয় তার সব করে যাওয়ার চেষ্টা করছি।

রোগীদের নমুনা সংগ্রহ এবং ঢাকায় আনা নেওয়ার জন্য মোট ৮টি অ্যাম্বুলেন্সের ব্যবস্থা করা হয়েছে। যার মধ্যে বার একাডেমী স্কুলে থাকবে ৪টি, নারায়ণগঞ্জ সিভিল সার্জন কার্যালয়ে ২টি এবং বন্দর থানা এলাকায় ২ অ্যাম্বুলেন্স ২৪ঘন্টা মানুষের সেবায় নিয়োজিত থাকবে। যার সম্পূর্ন ব্যয় এমপি সেলিম ওসমান নিজস্ব উদ্যোগে বহন করবেন।

এ ব্যাপারে তিনি বলেন, আমাদের নারায়ণগঞ্জে করোনা পরীক্ষায় কোন ল্যাব এখন পর্যন্ত স্থাপন হয়নি। আশা করছি আল্লাহর রহমতে খুব দ্রæত নারায়ণগঞ্জে একটি ল্যাব স্থাপন করা হবে। যতক্ষন পর্যন্ত ল্যাব স্থাপন না হচ্ছে ততক্ষন পর্যন্ত আমাদেরকে এই ৮টি অ্যাম্বুলেন্স দিয়ে জনগনকে সেবা দিতে হবে। ওই সময় পর্যন্ত একটু বেশি চাপ থাকবে। সবাইকে আমি ধৈর্য্য ধারন করে এই আপদ কালীন সময় নিজ নিজ কাজ চালিয়ে যাওয়া অনুরোধ রাখছি। সেই সাথে চিকিৎসকদের কাছে আমার অনুরোধ রাখবে আপনারা ভীত হবেন না। রোগীদের পরীক্ষার সংখ্যা আরো বাড়াতে হবে। দুর্যোগ এক সময় কাটিয়ে উঠবো আমরা।

প্রতি ওয়ার্ড ২০জন করে সেচ্ছাসেবী নিয়োগের বিষয়টি উল্লেখ্য করে যারা সেচ্ছা সেবী হবেন তাদের উদ্দেশ্য তিনি বলেন, আপনারা যারা সেচ্ছাসেবী হিসেবে কাজ করবেন আপনারা আগে নিজেদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিষয়টি মাথায় রেখে সকল ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা অবলম্বন করবেন। প্রয়োজনে ডাক্তাররা আমাদের বলে দিবেন আপনাদের কি কি করা উচিত, কি খাওয়া উচিত। আপনার এই রমজানটি বা যতদিন লকডাউন পরিস্থিতি থাকে ততদিন আপনারা নিজ নিজ এলাকায় দায়িত্ব পালন করবেন। সাধারণ মানুষকে করোনা সম্পর্কে সচেতন করবেন। বিশেষ করে গুজবের বিষয়টি মাথায় রাখবেন। যাতে করে কেউ গুজবে কান না দেন। নারায়ণগঞ্জে সব থেকে বেশি গুজব ছড়াচ্ছে। আমাদের চিকিৎসক এবং পুলিশ প্রশাসন অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। নারায়ণগঞ্জ-৫ আসন এলাকায় প্রায় ৬০০ সেচ্ছাসেবী কর্মী নিয়োগ দেওয়া হবে। পুলিশ এবং ডাক্তারদের পাশাপাশি এই ৬০০ সেচ্ছাসেবী যদি সঠিক ভাবে দায়িত্ব পালন করেন তবে আমরা বর্তমান পরিস্থিতি থেকে দ্রæত উত্তোরন হতে পারবো বলে আমি আশা করছি।

পরিদর্শন কালে আরো উপস্থিত ছিলেন খানপুর ৩০০ শয্যা(করোনা) হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত তত্ত¡বধায়ক ডাক্তার শামসুদ্দোহা সঞ্চয়, ১২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শওকত হাসেম শকু, বিকেএমইএ পরিচালক জিএম ফারুক প্রমুখ।

উল্লেখ্য, নারায়ণগঞ্জে করোনা রোগীর চিকিৎসা সেবা আরো জোরদার করতে গত ২৩ এপ্রিল খানপুর ৩০০ শয্যা হাসপাতালের চিকিৎসকদের থাকা খাওয়া, যাতায়াত ব্যবস্থা সহ আনুসাঙ্গিক বিষয়াদির সার্বিক ব্যবস্থা করতে ২০ লাখ টাকার আর্থিক সহযোগীতা প্রদান করেন। এর আগে নারায়ণগঞ্জ ক্লাবে ডাক্তারদের এবং নারায়ণগঞ্জ ডাকবাংলায় ডাক্তারদের সহযোগীদের থাকার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন এমপি সেলিম ওসমান।

এমপি সেলিম ওসমানের পক্ষ থেকে সহযোগীতা পেয়ে গত ২৩ এপ্রিল খানপুর ৩০০ শয্যা হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত তত্ত¡বাধায়ক ডাক্তার শামসুদ্দোহা সঞ্চয় বলেন, আমাদের জেলা স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি ও নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য যেভাবে আমাদের চিকিৎসকদের নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে সহযোগীতা নিয়ে পাশে দাড়িয়েছেন আমরাও কথা আমাদের খানপুর ৩০০ শয্যা হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে এসে একজন করোনা রোগীও ফেরত যাবেন না। যতদিন আমাদের জীবন চলবে আমরা আমাদের সর্বস্ব দিয়ে রোগীদের সেবা করে যাবো।

নিউজটি শেয়ার করুন...

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Recent Comments

    © All rights reserved © 2023
    Design & Developed BY M Host BD