ফতুল্লায় আবারও খুন

646

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ফতুল্লায় কিশোর গ্যাং সদস্যরা সাকিবকে(১৪)  ছুরিকাঘাত করে হত্যা করেছে বলে জানা গেছে। নিহত সাকিব ফতুল্লার দাপা রেলস্টেশন সংলগ্ন আজাদ মিয়ার বাড়ীর গলির ওহাবের বাড়ীর ভাড়াটিয়া রুবেল (সুমন) মিয়ার পুত্র।

ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার(২৫ জুন) রাতে তাকে ফতুল্লার রেলস্টেশন প্লাট ফর্ম মসজিদের পেছনের গলিতে।

স্থানীয় প্রতক্ষ্যদর্শীরা জানায়,রাত সাড়ে দশটার দিকে ১৫-১৭ বছর বয়সীদের একটি দল আাজাদ মিয়ার বাড়ীর পেছনের রাস্তায় ফতুল্লার রেলস্টেশন প্লাট ফর্ম মসজিদের পেছনের গলিতে নিহত সাকিব কে মারধর সহ ছুরিকাঘাত করে। এ সম নিহতের বড় ভাই তা দেখতে পেয়ে দৌড়ে গিয়ে হামলাকারীদের কবল থেকে তার ভাইকে রক্তাক্তবস্থায় উদ্ধার করে শহরের জেনারেল (ভিক্টোরিয়া) হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা সাকিব কে মৃত ঘোষনা করে।

খোকন (১৬) নামক এক কিশোর জানায়, সে ময়লার কাজ করে।গলি দিয়ে হেটে আসার পথে আলীগঞ্জের এক গ্রুপের সাথে মেম্বার বাড়ীর গলির পোলাপানদের সাথে মারামারি হচ্ছিলো। নিহত সাকিব এবং সে দুই গ্রুপের মারামারির মধ্যে হামলার শিকার হয়।মেম্বার বাড়ীর পোলাপান তাকেও মারধর করে এবং সাকিব কে ছুরিকাঘাত করে।

স্থানীয় একাধিক সূত্র মতে,ঘটনাস্থলের পাশেই রয়েছে  একটি রাজনৈতিক দলের কর্মী সমর্থকদের ক্লাব। এখানে প্রায় শতাধিক কিশোর-যুবক নিয়মিত আড্ডা দিয়ে থাকেন। এছাড়া স্থানীয় মাদক ব্যবসায়ী গরু নাসিরের পুত্র শান্ত, সাইকেল লিটনের পুত্র রিফাত ও জাকিরের গাজা ও হেরোইনের মাদক স্পট। এই মাদক স্পট পরিচালনায় রয়েছে উঠতি বয়সী বেশ কিছু মাদকাসক্ত কিশোর। এ সকল কিশোররা প্রায় সময় মারামারিতে লিপ্ত হয়।  তারা সংঘর্ষ বাধলেই ছুইচ গিয়ার বা ধারালো ছোট চাকু ব্যবহার করে থাকে। ধারনা করা হচ্ছে কিশোর গ্যাং সদস্যরাই এই হত্যা কান্ডের সাথে জড়িত। কয়েকদিন আগেও এখানে দুই গ্রুপের মধ্যে মারামারি ঘটনা ঘটছে।

হত্যাকন্ডের বিষয়টি নিশ্চিত করে ফতুল্লা মডেল থানার ইনচার্জ শেখ রিজাউল হক দিপু জানান,ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। হত্যা কান্ডের কারন সহ জড়িতদের গ্রেফতারে পুলিশের একাধিক টিম কাজ করছে।

নিউজটি শেয়ার করুন...