ফতুল্লায় জেলা স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা রাসেলে তান্ডব

85

নিজস্ব প্রতিবেদক: নারায়ণগঞ্জ জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সহ-সভাপতি রাসেল বাহিনীর বিরুদ্ধে পূর্ব শত্রæতার জের ধরে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও বসতবাড়ীতে হামলা চালিয়ে একই পরিবারের ৫জনকে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে নগদ সাড়ে ৫ লাখ টাকা ও স্বর্নালংঙ্কার লুট করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত রোববার দুপুরে ফতুল্লা বিসিক ২ নং গলি সংগ্ন মার্টিন গামেন্টর্সের সামনে এই হামলার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় রোববার রাতে আহত আ: রহমান বাদী হয়ে ফতুল্লা মেডল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছে।

অভিযোগে জানাযায়, পূর্বশত্রæতার জের ধরে গোল মোহাম্মদের পুত্র ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সহ-সভাপতি রাসেল(২৮), তার ভাই সিয়ন(২০), গোল মোহাম্মদসহ(৬৮) অজ্ঞাত ১০/১২জন বিসিক বিসিক ২ নং গলি এলাকার আ: রহমানের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও বাড়িতে হামলা চালায়। এসময় সন্ত্রাসীরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালিয়ে রহমানকে মারধর করে।

এসময় তার স্ত্রী রেহনা বেগম, ছেলে রান, মাসুদ, মাহিম এগিয়ে এলে তাদের কেও মারধর করা হয়। এসময় সন্ত্রাসী রাসেল বাহিনী ঘরে আ: রহমানের সাড়ে ৫ লাখ টাকা ও ৫ ভরি স্বর্ণ লুটপাট করে নিয়ে যায়। আহতদের মধ্যে তিন ছেলেকে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এবং গুরতর আহত রহমান ও তার স্ত্রীকে ভিক্টোরিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানাযায়, রহমানের পরিবারের সাথে রাসেলের পরিবারের দীর্ঘদিন যাবৎ পারিবারিক বিরোধ চলে আসছিলো। এরই জেরধরে রোববার দুপরে রহমানের বাড়ির সামনের রাসেল ও রহমানের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে রাসেল ফোন করে আতœীয় স্বজনসহ ২০-২৫ জনের একটি সন্ত্রাসী বাহিনী দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্র নিয়ে এসে রহমানের বাড়িতে হামলা করে। এসময় রহমানের বাড়ির সামনে থাকা একটি দোকান ও বসতবাড়ীতে হামলা চালায়।

উল্লেখ্য যে, ২ বঠর পূর্বে জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সহ-সভাপতি রাসেল তার আপন চাচীর সাথে পরকীয়া জড়িয়ে তাকে বাগিয়ে নিয়ে শহরের কালিরবাজার স্বর্ণপট্টি এলাকায় একটি ভাড়া বাসায় সংসার করে। পরবর্তীতে তার চাচা বিষয়টি জানতে পেয়ে ভাড়াটে সন্ত্রাসী দিয়ে রাসেলকে সেই ভাড়া বাসায় কুপিয়ে জখম করে স্ত্রীকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়। স্থানীয়দের ধারনা ওই ঘটনার জের ধরেই রোববারের এই হামলার ঘটনা ঘটে।

এ বিষয়ে ফতুল্লা মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) সঞ্জয় কুমার সরকার বলেন। থানায় দুপক্ষই অভিযোগ দায়ের করেছে, আমি ঘটনাস্থলে গিয়েছি, রহমানের দোকান, ঘর ভাংচুর হয়েছে, জায়গা জমি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে মারামারির ঘটনা ঘটেছে । তদন্ত চলছে অপরাধি যেই হোক তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন...

Warning: A non-numeric value encountered in /home/narayang/public_html/wp-content/themes/Newspaper/includes/wp_booster/td_block.php on line 352