ফতুল্লায় লাশের পরিচয় মিলেছে

51

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ফতুল্লার পিলকুনি-নন্দলালপুর সড়কের মোল্লাবাড়ি মসজিদের পাশের ডোবা থেকে অজ্ঞাত পুরুষের লাশটি ছিল অটোরিকশা চালক হাসানের(৩৮)। কাশীপুর বাঁশমুলি এলাকার মজিবুর মিয়ার বাড়ীর ভাড়াটিয়া।

দুইদিন নিখোঁজ থাকার পর স্ত্রী তানিয়া ফতুল্লা মডেল থানায় জিডি করতে এসে লাশের পরিচয় শনাক্ত হয়।

স্ত্রী তানিয়া জানায়, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টায় বাসা থেকে বের হয়ে মনিরের গ্যারেজ থেকে অটোরিকশা নিয়ে বের হয়। এরপর থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন। আজ ফতুল্লা মডেল থানায় জিডি করতে এসে আমার স্বামীর মৃত্যুর বিষয়টি জানতে পারি। তাঁদের  এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। নিহত হাসান বাহের মাঝি গ্রামের, দৌলতপুর থানার কুষ্টিয়া জেলার আবু সামার পুত্র।

 গত শুক্রবার সকালে স্থানীয় লোকজন পিলকুনি মোল্লা বাড়ী মসজিদ সংলগ্ন একটি ডোবায় লাশ দেখতে পেয়ে। ৯৯৯ নাম্বারে ফোন করলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশটি উদ্ধার করে। পুলিশের ধারণা, বৃহস্পতিবার রাতের যে কোন সময়ে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা তাঁকে হত্যা করে ডোবায় ফেলে রেখে গেছে। নিহতের পরনে জিন্স প্যান্ট ও গায়ে নীল রংয়ের ফতুয়া ছিল।

নিউজটি শেয়ার করুন...