মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ০২:৪২ পূর্বাহ্ন

বেতন-বোনাস না পেয়ে আজমেরী ওসমানের শরনাপন্ন

নিজস্ব প্রতিনিধি: শতভাগ বেতন-বোনাস না পওয়ায় সাবেক এমপি বীর মুক্তিযোদ্ধা নাসিম ওসমান তনয় আজমেরী ওসমানের শরনাপন্ন হয়েছে নারায়ণগঞ্জ দোকান ও প্রতিষ্ঠান কর্মচারী ইউনিয়ন। এছাড়াও সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা হওয়ায় তাঁর কাছে সহযোগীতা চেয়ে আবেদন পত্র প্রদান করেছে ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ। গতকাল বিকালে ভুক্তভোগী অর্ধশত কর্মচারী তাঁর বাসভবনের সামনে ভীড় করতে দেখা গেছে।

পরে আজমেরী ওসমানের পক্ষে কর্মচারী ইউনিয়ন নেতৃবৃন্দের কাছ থেকে তাদের আবেদনটি গ্রহন করেন নাসিম ওসমান স্মৃতি দুস্থ্য ও জনকল্যান ফাউন্ডেশনের সভাপতি তরিকুল ইসলাম লিমন। এসময় তিনি সংগঠনের উপদেষ্টা আজমেরী ওসমানের সাথে কথা বলে বিক্ষুব্দ কর্মচারীদের সহযোগীতার আশ্বাস দেন।

প্রধান উপদেষ্টার পক্ষে তরিকুল ইসলাম লিমন জানান, আজমেরী ভাই সবসময়ই খেটে খাওয়া শ্রমজীবী মানুষের পাশে আছেন। তিনি আপনাদের উদ্দেশ্যে আমাকে জানাতে বলেছেন, আপনারা সকলেই নিয়মতান্ত্রিকভাবে আবারো মালিকদের সাথে বৈঠক করুন। বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে আপনারা কতটা খারাপ আছেন, তা তিনি অবগত আছেন। যেহেতু লকডাউন থাকাকালীন তিনি সকলের খোঁজ নিয়ে আপনাদের সংগঠনের মাধ্যমে খাদ্য সামগ্রীও দিয়েছেন। এতে বুঝার বাকি নেই, এমন অবস্থায় যদি বেতন বোনাস নিয়ে আপনাদের সাথে অবিচার করা হয়, কেমন থাকতে পারেন আপনারা। তবে সকলকে অনুরোধ করছেন, কোন অশৃঙ্খলা ও আন্দোলনে আপাতত যাবেন না। মালিকদের সময় দিন। আমি আশা করবো, খুব শিঘ্রই তারা আপনাদের এ সমস্যা সমাধান করবে। কারণ আপনাদের সাথে অবিচার করে মালিকরা আপনাদের আন্দোলনে নামাতে চাইলে পরিস্থিতি ভালো হবে না। আর যদি না তারা এগিয়ে না আসে সেক্ষেত্রে শ্রমজীবী মানুষের জন্য আমার যতটুকু সার্মথ আছে আমি সহযোগীতায় এগিয়ে আসবো।

এসময় সংগঠনের নেতারা জানায়, মালিকরা তাদের কর্চারীদের শতভাগ বেতন-বোনাস দিচ্ছে না। করোনাকালে মালিকরা কোন খোঁজখবর কিংবা সহযোগীতার হাত বাড়ায়নি। বরং লকডাউন শিথিল অবস্থায় দোকান খুলে দেয়া হলে কর্মচারীরা তাদের কর্মস্থলে যোগ দিয়ে দায়িত্ব পালন করেছেন। কিন্তু ঈদ উপলক্ষেও মালিক পক্ষ তাদের কোন বোনাস দেয়নি। পাশাপাশি ৪০-৫০ পার্সেন্ট বেতন দিয়ে অনেককে ছাটাই করা হচ্ছে। এতে করে পরিবার নিয়ে অসহায় জীবন কাটছে কর্মচারীদের। মালিকদের কাছে একাধিকবার গিয়ে তারা কোন সমাধান পায়নি। তাই এর সমাধানে শ্রম অধিদপ্তর, নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কর্মাস এন্ড ইন্ডাস্ট্রিজ সহ প্রধান উপদেষ্টা আজমেরী ওসমানের শরনাপন্ন হয়েছি।

এরআগে কলকারখানা শ্রম অধিদপ্তর ডি.আই.জি.সমন বরুয়া এসকল বিষয় প্রতিকারের জন্য মালিকদের সাথে কর্মচারীদের একটি বৈঠক করার ব্যবস্থা করার পরামর্শ দেন। এছাড়াও পুরো বিষয় জেনে পরবর্তিতে পদক্ষেপ গ্রহন করা হবে বলে তিনি আশ্বস্ত করেছিলেন।

ওইসময় অন্যান্যদের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন, সংগঠনের সভাপতি মো. মোজামেমল হক, সহ সভাপতি মুক্তার হোসেন, সাধারণ সম্পাদক তুলসী ঘোষ সহ সাধারণ সম্পাদক সপন প্রধান, সাংগঠনিক সম্পাদক একে পিন্টু, প্রচার সম্পাদক সৌরভ প্রধান, কেশিয়ার মো.খোকা সহ অন্যান্যরা।

নিউজটি শেয়ার করুন...

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Recent Comments

    © All rights reserved © 2023
    Design & Developed BY M Host BD