ভোকেশনাল খেলার মাঠ রক্ষায় মানববন্ধন 

71
শহর প্রতিনিধিঃ পড়ালেখা যেমন মানুষের জ্ঞান আহরণের   ভান্ডার  ঠিক তেমনি মানব শরীরকে সুস্হ রাখতে  খেলা ধূলার একান্ত প্রয়োজন, যা আমরা সবাই মনে করি বা একবাক্যে শিকার করে থাকি।আজ আমাদের উন্মুক্ত খেলার মাঠের  সংকট। চারদিকে নাগরিক বসতি ও অপরিকল্পিত শিল্প প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠার কারনে। অপরদিকে স্কুল, কলেজ সহ সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যে সকল খেলার মাঠ রয়েছে তাও উন্নয়নের ও বানিজ্যিক চিন্তা নিয়ে মাঠ দখল করার মহা উৎসবে মেতে উঠেছে আমাদের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। এ ছাড়া অতন্ত্য দুঃখের বিষয় যে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে খেলার মাঠ রয়েছে, সে প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের কালো আদেশে খেলার মাঠ  সকলের জন্য উন্মুক্ত নয় বলে তালাবদ্ধ করে রাখা হয়েছে। মাঠ গুলো উন্মুক্ত না থাকার কারনে আজ কোমলমতি শিশুরা খেলাধুলার প্রতি উৎসাহ হারিয়ে ফেলে রুগ্ন শারিরীক গঠন নিয়ে বেড়ে উঠছে, যা আমাদের কাম্য নয়।আমরা চাই আমাদের সন্তানেরা পড়া লেখার পাশাপাশি খেলাধূলা করে সুস্হ দেহের অধিকারী হবে।
নারায়ণগঞ্জ জেলা সিদ্ধিরগঞ্জ থানাধীন অাইলপাড়া পাঠানটুলীস্থ নারায়ণগঞ্জ টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজের   মাঠ রক্ষার জোড় দাবী নিয়ে শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও এলাকাবাসী  আন্দোলন করে যাচ্ছে বেশ কিছু দিন ধরে।
ছাত্র অভিভাবকবৃন্দের দাবী আমাদের সন্তান সহ প্রায় ১২০০ শিক্ষার্থী এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত রয়েছেন। এ সকল কোমলমতি শিক্ষার্থী এ মাঠে খেলাধূলা করে থাকে। করোনা পূর্বকালীন যখন মাঠটি উন্মুক্ত ছিলো তখন এ মাঠে প্রাথমিক পর্যায়ে  ফুটবল-ক্রিকেট  খেলা শুরু করলেও অনেকেই   জাতীয় পর্যায়ের খেলোয়ার হয়ে আমাদের নারায়নগঞ্জ এর গর্ব দেশসহ বিশ্বে ছড়িয়ে দিয়েছেন। অথচ আজ আমাদের সমাজের সন্তানরা এ মাঠ ব্যবহার থেকে বঞ্চিত হওয়ার পথে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কর্তৃপক্ষ প্রবেশ গেট তালাবন্ধ করে রাখায়। আর শিক্ষার্থীরা এতদিন  যে খেলার সুযোগ পেতো সেটাও আজ মাঠ কেটে নতুন ভবন নির্মান করার কারনে বন্ধের পথে।
এ মাঠ রক্ষার দাবীনিয়ে এলাকার সচেতন মহল, অভিভাবক ও শিক্ষার্থী বেশ কিছু দিন ধরে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহন করে যাচ্ছেন। সকলের গনস্বাক্ষর সম্বলিত মাঠ রক্ষার্থে  একটি লিখিত আবেদনও অত্র প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষকে দেয়া হয়। এছাড়াও নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক বরাবর একটি স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে । তবুও মাঠের কাজ বন্ধ হয়নি! সকলের দাবী মাঠ ঠিক রেখে পরিত্যক্ত স্হানে নব ভবন নির্মানের যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে।
তাদের এ দাবী পুরনের জন্য ৩জুন (বৃহস্পতিবার) সকালে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সামনে মানববন্ধন সহ বিক্ষোভ প্রতিবাদ করেছেন। মানববন্ধনে তাদের দাবী তুলে ধরে বক্তারা বলেন, আমরা মাঠ রক্ষার্থে বিভিন্ন দপ্তরে যে আবেদন ও মাননীয় জেলা প্রশাসককে স্মারকলিপি দিয়েছি  যদি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ কোন ব্যবস্হা গ্রহন না করেন তা হলে আমরা অচিরেই বৃহত্তর আন্দোলন সহ রাজপথে আন্দোলন করতেও প্রস্তুত রয়েছি।
ভোকেশনাল খেলার মাঠ রক্ষায় সম্মিলিত ছাএ অভিভাবকবৃন্দের মুখপাত্র গোলাম মোস্তফা সাচ্ এর সঞ্চালনায় এবং অত্র এলাকার পঞ্চায়েত প্রধান ইসমাইল মাদবরের সভাপতিত্বে আন্দোলনে সমর্থন জানিয়ে সংহতি বক্তব্য রাখেন রুপালী তারার মেলার কেন্দ্রীয় সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম গোলক, বাংলাদেশ ছাত্র মৈত্রীর কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি ও জেলা সভাপতি জেসমিন আক্তার, নতুন আইলপাড়া সমাজ কল্যান এর সভাপতি মাহাতার হোসেন, মসজিদ কমিটির সভাপতি আবু   মুসা,সোনালী অতীত এর সভাপতি খেলোয়ার মোতালেব হোসেন, সমাজ সেবক ও নাট্য ব্যক্তিত্ত্ব মোঃ শাহজাহান, খেলোয়ার সোহেল রানা, মোঃ ইসমাঈল হোসেন তারিফ, আবু সাঈদ,জাহিদুল ইসলাম শুভ,পনি,আমিনুল ইসলাম রকি,সোহান,হাসান,শান্ত,লিমন,ফাহিম সহ প্রমূখ।
নিউজটি শেয়ার করুন...