শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১২:৫৬ অপরাহ্ন

সাংবাদিক নেতৃবৃন্দের সাথে পুলিশ সুপারের মতবিনিময়

নারায়ণগঞ্জের খবরঃ নারায়ণগঞ্জ নিউজ পেপার ওনার্স এসোসিয়েশনের সভাপতি আরিফ আলম দীপুর নেতৃত্বে জেলা পুরিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদের সঙ্গে মতবিনিময় করেছেন সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ। এসময় নারায়ণগঞ্জের আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি, রাজনৈতিক সামাজিক বিষয়বস্তু আলোচনায় স্থান পায়।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন নিউজ পেপার ওনার্স এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক সোজা সাপটা পত্রিকার স্বত্ত্বাধিকারী কামরুল ইসলাম সোহেল, বন্দর প্রেসক্লাবের সভাপতি ও দৈনিক নারায়ণগঞ্জের আলো পত্রিকার সম্পাদক কমল খান, নারায়ণগঞ্জ সাংবাদিক ইউনিয়ন (এনইউজে) (রেজি নং-৪৪৬০) এর সহ সভাপতি ও দৈনিক ভোরের কথা পত্রিকার সম্পাদক আরিফুজ্জামান, যুগ্ম সম্পাদক ও নিউজ পোর্টাল লাইভ নারায়ণগঞ্জের প্রধাণ নির্বাহী মোহাম্মদ কামাল হোসেন, ফতুল্লা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহিম প্রমুখ।

জেলা পুলিশ সুপারের নেতৃত্বে সন্ত্রাস ও মাদকের বিরুদ্ধে অভিযানের প্রশংসা করে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ বলেন, আপনার নেতৃত্বে জেলা পুলিশ সামাজিক অপরাধে সম্পৃক্তদের বিরুদ্ধে যে সাড়াশী অভিযান পরিচালনা করছে তাতে আমরা সাধুবাদ জানাই। এসব অভিযানের সংবাদ আমরা ফলাও করে প্রকাশ করছি ,যাতে জেলার আইন-শৃংখলা পরিস্থিতির উন্নয়নে জেলা পুলিশের ভূমিকা জনমনে স্বস্তি এনে দিচ্ছে।

সাম্প্রতিক সময়ে কয়েকটি জাতীয় ও অনলাইন মিডিয়ায় শহরের একটি জুয়ার আসর উচ্ছেদ অভিযানের ২ মাস পর সাংবাদিকদের নাম জড়ানোর বিষয়টি তদন্ত পূর্বক প্রকৃত দোষীদের খুজে বের করে শাস্তির ব্যাবস্থা করার দাবি জানান।

সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ বলেন, মুলত অপরাধমুক্ত সমাজ গঠনে নারায়ণগঞ্জের পুলিশ প্রশাসনের সঙ্গে স্থানীয় সাংবাদিকদের সমন্বয় এবং পরস্পরের সহযোগীতা বিশেষ ভূমিকা রেখে আসছে। এ কারণে প্রশাসন ও সাংবাদিকদের মধ্যে ভ্রাতৃপ্রতিম সম্পর্ক বিরাজমান। বিগত সময়ে সাংবাদিকরা পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন মহলের বিরাগভাজনও হয়েছে। সংবাদ প্রকাশের কারণে সাংবাদিকদের প্রতিপক্ষও বানিয়েছে কোন কোন মহল। আমরা মনে করি গণমাধ্যমের ভূমিকায় কোন শ্রেনী বা মহলের আক্রোশে ঐ গণমাধ্যম কর্মীর ব্যাপারে পুলিশ প্রশাসনকে মিথ্যা ও বিভ্রান্তকর তথ্য দেয়া হয়েছে। যাতে নারায়ণগঞ্জের সাংবাদিক সমাজকে হেয় প্রতিপন্ন এবং পেশাগত দায়িত্ব পালনে চাপের মধ্যে রাখার একটি প্রক্রিয়া বলে আমরা মনে করি।

এসময় জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ বলেন, সন্ত্রাসী, মাদক ও অপরাধমুক্ত নারায়ণগঞ্জ গঠনে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। এখানকার অপরাধ নিয়ন্ত্রণ করতে পারলে জেলাবাসী ভালো থাকবে। শান্তি ফিরে আসবে। এজন্য সাংবাদিকদের সহযোগীতা একান্ত প্রয়োজন। আপনাদের মধ্যে গ্রুপিং থাকতে পারে কিন্তু সকলের সাথেই আমার সুসম্পর্ক রয়েছে। তবে কিছু কিছু অতিরঞ্জিত সংবাদ নারায়ণগঞ্জ সহ দেশবাসীর মাঝে বিরুপ মনোভাব দেখা দেয়। যেমন ডিসেম্বরে আমাদের দেয়া একটি রিপোর্টকে কেন্দ্র করে একটি জাতীয় দৈনিক নানাভাবে খুচিয়ে খুচিয়ে লিখছে। এতে করে মানুষ মনে করছে নারায়ণগঞ্জে পুলিশের সাথে রাজনৈতিক নেতাদের যুদ্ধ চলছে। আসলে তা নয়। মন্ত্রী-এমপি সাহেবদের সঙ্গে আমার সুসম্পর্ক রয়েছে। কারও সাথে আমার দ্বিমত নেই। আমি আমার কাজ করছি ওনারা ওনাদের কাজ করছেন।

পহেলা বৈশাখে এমপি শামীম ওসমান সাহেব আমার বাসভবনে দাওয়াত খেয়ে গেছেন। এমন নজির অন্য কোন জেলায় নেই। আজও ওনার সাথে কথা হয়েছে। আমাদের মাঝে সুসম্পর্ক রয়েছে। তারপরও কেউ কেউ চাচ্ছে দূরত্ব সৃষ্টি করতে। কিন্তু আমার কাছে এসব চলবে না। আমাদের উদ্দেশ্য নারায়ণগঞ্জের ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনা। শান্তি-শৃংখলা রক্ষা করা। আর এ কাজ করে সর্ব মহলের প্রশংসা পাচ্ছি। সাংবাদিকদেরও আমরা পাশে চাই। এসময় সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ একটি লিখিত বক্তব্য তুলে দেন পুলিশ সুপারের হাতে। মতবিনিময় শেষে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দকে মিষ্টিমুখ করান পুলিশ সুপার।

নিউজটি শেয়ার করুন...

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Recent Comments

    © All rights reserved © 2023
    Design & Developed BY M Host BD