রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:২১ পূর্বাহ্ন

কাউন্সিলর রুহুলের বিরুদ্ধে এবার মাদক কারবারির অভিযোগ !

নারায়ণগঞ্জের খবর : নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন ৮ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রুহুল আমীন মোল্লার বিরুদ্ধে এবার মাদকের সম্পৃক্ততা নিয়ে অভিযোগ উঠায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। এরআগে আপন বড় ভাইকে পেটানোর অভিযোগ উঠলেও কাউন্সিলর রুহুল আমিন মোল্লা বলেছিলেন তার ভাই একজন মাদকসেবী, সে যেসব অভিযোগ করেছে তা মিথ্যা। তবে কাউন্সিলর রুহুলের বড় ভাই খোকন মোল্লার আরেকটি ভিডিও বার্তা ইতমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে গেছে।

ওই ভিডিও বার্তায় খোকন মোল্লা সাফ জানাচ্ছেন, তার ছোট ভাই নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন ৮ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রুহুল আমীন মোল্লা। সে ইলেকশন পাশ করার পর থেকেই পোলাপান দিয়ে মাদক বিক্রি করাইতো। তিনি আরো বলেন, আমি (বড় ভাই খোকন মোল্লা) ওইটাকা কালেকশন করতাম। ওই কালেকশন না করাতে  ২-৩ মাস ধরে জোড় কইরা অর্ধেক  দখল করে নিসেগা। পুলাপাইনগো কাছে কিছু টাকা পাইবো, ওগুলি উঠায় দেইনা দেইখা। পুলিশ র্যা ব দিয়া আমারে মাদকাসক্ত বানাইয়া মাইরা ফলার চেষ্টা করতাসে।  মানুষের কাছে সত্য কথা কমু দেইখা, আমারে ধরায় লইয়া যাইবো। তাই মাননিয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন আমার জানের নিরাপত্তার জন্য র্যা ব পুলিশ যেন সহযোগীতা করে।

এরআগে গত ১৭ অক্টোবর (শনিবার) বিষয়টি প্রকাশ করে খোকন মোল্লা জানান, সে তার ছোটভাই এনসিসি কাউন্সিল রুহুল আমীনের সাথে দীর্ঘদিন ধরে জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলছিল তাদের। এরই ধারাবাহিকতায় গত বুধবার আমার নাতনীকে চুলোয় আগুন পোহানো হচ্ছিলো। রুহুল এসে গ্যাসের ঐ চুলো খুলে নিয়ে যায়। আমি গিয়ে এ বিষয়ে রুহুলকে জিজ্ঞেস করায় সে আমার উপর ক্ষিপ্ত হয়। পরে আমাকে লাঠি দিয়ে মারধর করে এবং আমার ঘরের জানালা দিয়ে আগুন দেয়।

এদিকে এ বিষয়ে জানতে কাউন্সিলর রুহুল আমিন মোল্লা কে একাধিকবার কল দেয়া হলেও তিনি রিসিভ করেন নি। তাই ভিডিও বার্তা পররবর্তি বিষয়ে তার কোন মন্তব্য পাওয়া যায়নি। এরআগে মারধরের অভিযোগকে ভিত্তিহীন দাবি করে কাউন্সিলর রুহুল আমিন মোল্লা বলেছিলেন, তার বড় ভাই খোকন মোল্লা দীর্ঘদিন ধরে মাদকের সাথে সম্পৃক্ত। ঘটনার দিন সে তার মাকে মারার জন্য তেড়ে এসেছিল। সে তার বাড়িতে মাকে প্রবেশ করতে দেয় না দেয়না। সেখানে সে তার বউ,শ্বাশুড়ি এবং সন্তানদের নিয়েই থাকে। এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় বড় ভাই খোকন মোল্লার বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে বলেও জানান কাউন্সিলর রুহুল আমিন মোল্লা। তবে পুলিশ কোন ব্যবস্থা নেয় না বলে তিনি আক্ষেপ করেছিলেন।

অন্যদিকে স্থানিয় সূত্রে জানা গেছে, এ ঘটনার পর থেকে বড় ভাই খোকন মোল্লাকে বুঝানোর চেষ্টা করা হলেও তিনি মানতে নারাজ। তাছাড়া দীর্ঘদিন ধরেই জমি নিয়ে তাদের মধ্যে জমি নিয়ে বিরোধ চলছে। তবে পারিবারিক দ্বন্দ্ব বাহিরে ছড়িযে পড়ায় তা এখন টক অব দ্যা টাউনে পরিণত হয়েছে। একঅপরের অভিযোগ, সংবাদ সম্মেলনের পরেও বেসামাল রয়েছে বড় ভাই খোকন মোল্লা। এতে করে একজন জনপ্রতিনিধি হিসেবে প্রশ্নবিদ্ধের সম্মুখীন হয়ে পড়েছে কাউন্সিলর রুহুল আমিন মোল্লা।

নিউজটি শেয়ার করুন...

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Recent Comments

    © All rights reserved © 2023
    Design & Developed BY M Host BD