মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ০১:২৭ পূর্বাহ্ন

কুতুবপুরে কিশোর গ্যাং লিডার মুক্তার-অনিকের বেপরোয়া

ফতুল্লা প্রতিনিধিঃ নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার কুতুবপুর ইউনিয়নের শাহীবাজার আমতলা এলাকার কিশোর গ্যাং বাহিনীর লিডার মুক্তর ও অনিক বাহিনীর অত্যাচারে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী । একের পর এক অপকর্ম কর চলছে এই গ্যাং বাহিনী ,চুরি ছিনতাই , সহ মারামারির একাধিক অভিযোগ রয়েছে এ্ই গ্যাং বাহিনীর বিরুদ্ধে । মুক্তর ও অনিক বাহিনীতে রয়েছে প্রায় শতাধিক সদস্য এলাকায় কারো সাথে কথা কাটাকাটি হলেই এই গ্যাং বাহিনির সদস্যরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে বের হয়ে এলাকায় সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালায় । এই গ্যাং বাহিনী শেল্টার দাতা জেলা যুবলীগের এক বড় নেতার আশ্রয়ে চালায় ।

গত ২ নভেম্বর রাতে সুমন নামের এক যুবকে রাস্তায় পেয়ে মেরে মাথা ফাটিয়ে তার কাছে থাকা মোবাইল ফোন ও প্রায় ৩ হাজার টাকার ছিনিয়ে নেয় এই গ্যাং বাহিনীর সদস্য মুক্তর (৩০) পিতা আবুল হাশেম , অনিক (১৮) পিতা সিরাজ মিয়া , ইমন (১৮) পিতা চাঁন মিয়া সহ প্রায় ২০ থেকে ৩০ জন সদস্য ছিলো এই গ্যাং বাহিনীর । পরে সুমন বাদী হয়ে এবিষয় ফতুল্লা মডেল থানায় একটি অভিযোগ করেন ।

৩ অক্টোবর শুভ নামের এক যুবককে রাতে রাস্তায় আটকিয়ে বেদর মারে এই গ্যাং বাহিনীর লিডার মুক্তার ও অনিক এসময় শুভর কাছে থাকা একটি মোবাইল ফোন ও ২হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয় । এবিষয় শুভ বাদী হয়ে ফতুল্লা মডেল থানা একটি অভিযোগ করেন ।

এই কিশোর গ্যাং বাহিনী লিডার মুক্তার ও অনিকের বিরুদ্ধে ফতুল্লা মডেল থানায় প্রায় ১০ টি ও বেশি অভিযোগ রয়েছে । এলাকাবাসী এদের কারনে সব সময় আতংকে থাকে রাস্তা দিয়ে কোন মেয়ে গেলেও এদের কাছ থেকে রক্ষা পায় না কখোন কখনো ইপটিজিং এর শিকার হয় ।

মুক্তার ও অনিক সব সময় ইয়াবা সেবন করেন তাছাড়া মাদক ব্যবসার সাথেও জড়িত রয়েছেন এই কিশোর গ্যাং বাহিনী সদস্য ও লিডার রা । তাদের বিরুদ্ধে এলাকায় ভয়ে কেউ কথা বলেন না । এলাকাবাসী প্রশাসনের কাছে দাবী জানিয়েছেন অচিরেই এই মুক্তার ও অনিক বাহিনীকে গ্রেফতার করে আইনের আলতায় আনতে । এলাকাবাসী পুলিশ সুপার ও ফতুল্লা মডেল থানার ওসির সুদৃষ্টি কামনা করেছেন ।

নিউজটি শেয়ার করুন...

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Recent Comments

    © All rights reserved © 2023
    Design & Developed BY M Host BD