শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ০৮:৫৪ পূর্বাহ্ন

পিলকুনি কবরস্থানের পক্ষে এলাকাবাসী একাট্টা

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেড়শত বছরের পুরোনো কবরস্থানের জমি জাল- জালিয়াতির মাধ্যমে ক্রয় করার অভিযোগে জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক ও ফতুল্লা থানা বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য সচিব পান্না মোল্লার বিরুদ্ধে দ্বিতীয় বারের মতো বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে ফতুল্লা পিলকুনি কবরস্থান কমিটির নেতৃবৃন্দ ও বিক্ষুদ্ধ এলাকাবাসী।
শনিবার(২৭ মার্চ) বিকেলে ফতুল্লার পিলকুনি কবরস্থানের সামনে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ  করা হয়।
মোবারক মোল্লার সভাপতিত্বে এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মীর সোহেল আলী,  মহানগর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক শাহ নিজাম, ফতুল্লা থানা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক ফয়জুল ইসলাম, কুতুবপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মনিরুল আলম সেন্টু, আওয়ামী লীগ নেতা মোবারক হোসেন, বিএনপি নেতা তাহের মোল্লা, ইকবাল মোল্লা, আমজাদ মেম্বার, মোস্তাক আহমেদ, আবু জাহের প্রমুখ।
প্রতিবাদ সভায় মহানগর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক শাহ নিজাম বলেন,দশম শ্রেনীর ছাত্র কালীন সময় থেকে নারায়নগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য একে,এম শামীম ওসমানের নিকট থেকে শিখেছি  কি ভাবে অধিকার আদায় করতে হয়।জনগনের অধিকার বা দাবী পূরনে আমি পিলকূনি বাসীর সাথে আছি এবং কেউ যদি এই আন্দলোনে নাও থাকে আমি একা দাড়িয়ে এর প্রতিবাদ জানাবো।
জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মীর সোহেল আলী বলেন,কবরস্থানের জমি একজন নেতা হয়ে পান্না মোল্লার কেনা উচিত হয়নি।আমি হলে তা কখোনই করতামনা।রক্ত দিয়ে হলেও কবরস্থানের জমি রক্ষা করবো ইনশ্ আল্লাহ।
কুতুবপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মনিরুল আলম সেন্টু বলেন,রাজনৈতিক ব্যাক্তিরা উদার মনের হয়ে থাকে।এরা কখোনে মসজিদ,মাদ্রাসার জমি দখল করেনা।তিনি বিএনপি নেতা পান্না মোল্লাকে এ কবরস্থানের জমি দখল করার অপচেস্টা থেকে বিরত থাকার আহবান জানিয়ে কবরস্থান কমিটির সাথে আলোচনা করে সমাধান করার প্রস্তাব রাখেন।
কবরস্থান কমিটির সভাপতি মোস্তফা মোল্লার অভিযোগ  মেহের আলী নামে এক ব্যক্তির কাছ থেকে পান্না মোল্লা আমাদের পিলকুনি কবরস্থানের ১৭ শতাংশ জমি ক্রয়ের উদ্দেশ্যে বায়না করেছে। বিষয়টি জানাজানি হলে পান্না মোল্লা ও তার লোকজনদের বুজানো হয়েছে ওই জমিতে পুরনো কবর রয়েছে। তারপরও জমিটি নাম মাত্র মূল্য দিয়ে পান্না মোল্লা ক্রয় করার চেষ্টা করছে। আমরা কবরস্থান কমিটি ও এলাকাবাসী এর তীব্র নিন্দা জানিয়েছি ও বিক্ষোভ করেছি। কবরস্থানের জমি থেকে সরে না আসলে পান্না মোল্লা ও মেহের আলীর বিরুদ্ধে কঠোর আন্দোলন করা হবে।
নিউজটি শেয়ার করুন...

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Recent Comments

    © All rights reserved © 2023
    Design & Developed BY M Host BD