শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১২:৫৭ অপরাহ্ন

ফতুল্লায় ডাইংয়ের গরম পানিতে ঝলসে গেছে পথচারী

নারায়ণগঞ্জের খবরঃ ডাইংয়ের বর্জ্য মিশ্রিত বিষাক্ত গরম পানিতে পড়ে জ¦লসে গেছে পথচারী নুরুল ইসলামের শরীর। জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন রয়েছেন তিনি। শরীর প্রায় ৬০ শতাংশ পুড়ে গেছে বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন। তিনি শঙ্কা মুক্ত নয়। এ ঘটনায় আহতের স্ত্রী ইয়াসমিন বেগম বাদী হয়ে দিপ্তি ডাইং ও পপুলার ডাইয়ের মালিকের বিরুদ্ধে গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে ফতুল্লা মডেল থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে। আহতের স্ত্রী জানান, বুধবার রাতে আমার স্বামী ফতুল্লা ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন রাস্তা দিয়ে বাসায় ফেরার পথে রাস্তার উপর জমে থাকা দিপ্তি ডাইং ও পপুলার ডাইংয়ের বিষাক্ত বর্জ্য মিশ্রিত গরম পানিতে পড়ে গিয়ে তার(নুরুল ইসলাম) শরীর ঝলসে যায়। তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে দ্রæত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে তার অবস্থা গুরুতর। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, তার শরীরের প্রায় ৬০ শতাংশ পুড়ে গেছে এবং তিনি জীবনমৃত্যুর সিন্ধক্ষণে রয়েছে।

তার অভিযোগ, দিপ্তি ও পপুলার ডাইং দু’টি সরকারের নিয়মকে বৃদ্ধাঙ্গুলী দেখিয়ে দীর্ঘদিন ধরে ডাইংয়ের ক্যামিকেল মিশ্রিত বিষাক্ত গরম পানি ছেড়ে দেয়। এর ফলে স্থানীয়দের নানা ভোগান্তির মধ্যে রয়েছে। এদের বিরুদ্ধে কেউ প্রতিবাদ করলেই তার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী কিংবা তার পালিত ক্যাডার বাহিনী দিয়ে ধরে নিয়ে শারিরিক নির্যাতন চালায়। এরফলে দিপ্তি ডাইংয়ের মালিক রফিকুল ইসলাম টিপুর বিরুদ্ধে কেউ মুখ খুলতে সাহস পায় না। কিংবা কেউ অভিযোগ করলেও থানা পুলিশকে সহজেই ম্যানেজ করে ফেলে।

উল্লেখ্য, ফতুল্লার বনানী সিনেমা হলের টিকেট বিক্রেতা থেকে কোটিপতি বনে যাওয়া পোষ্ট অফিস রোড এলাকার রফিকুল ইসলাম টিপু ওরুফে বরিশাইল্যা টিপুর বিরুদ্ধে অভিযোগের অন্ত নেই। সরকারী-বেসরকারী ব্যাক্তি মালিকানাধীন ভূমি জবর দখলসহ অর্থ আত্মসাতের পর ফতুল্লা ইউনিয়নের উন্নয়ন প্রকল্পের আওতাধীন দীর্ঘ ৫০বছরের ব্যবহৃত সরকারী রাস্তা দখল করে নিয়েছে বরিশাইল্যা টিপু।

এ ঘটনায় একাধিকবার স্থানীয় বাসিন্দারা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানকে বিষয়টি লিখিত ভাবে জানালেও চেয়ারম্যান এ ব্যাপারে কোন ব্যবস্থা গ্রহন করেনি। এ ঘটনায় স্থানীয় বাসিন্দা মো: শরীফ হোসেন থানা সাধারন ডায়েরী করেছে। স্থানীয় বাসিন্দারা জানায়, পোষ্ট অফিস রোডের পাশের জয়নগর ষ্টীল মিল ও সালাসা টেক্সটাইল মিলের মাধ্য দিয়ে বয়ে যাওয়া রোড দীর্ঘ অর্ধশত বছরেরও বেশী সময় স্থানীয়রা ব্যবহার করে আসছে। রাস্তা বন্ধের প্রতিবাদ জানালে স্থানীয় বাসিন্দা দেলোয়ার হোসেন দেলুকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা চালায়। এ ঘটনায় দেলুর স্ত্রী বাদী হয়ে টিপুর বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন...

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Recent Comments

    © All rights reserved © 2023
    Design & Developed BY M Host BD