আড়াইহাজারে খোলা হয়েছে ১০ শয্যা বিশিষ্টআইসোলেশন ইউনিট

214

আড়াইহাজার প্রতিনিধি: আড়াইহাজারে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে খোলা হয়েছে ১০ শয্যা বিশিষ্ট আইসোলেশন ইউনিট। আলাদা কক্ষে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত পাঁচজন নারী ও পাঁচজন পুরুষকে চিকিৎসা প্রদান করা হবে। আজ সোমবার উপজেলা স্বাস্থ্য ও প:প: কর্মকর্তা ডা. সায়মা আফরোজ ইভা এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে ১০ শয্যা বিশিষ্ট আইসোলেশন ইউনিট চালু করা হয়েছে।

ইউনিটে আলাদা কক্ষে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত পাঁচ নারী ও পাঁচ পুরুষকে চিকিৎসা প্রদান করা হবে। এর মধ্যে একজন নারী ও একজন পুরুষকে করোনা ইউনিটে স্থানান্তর করা হয়েছে। প্রথম বারের মতো আইসোলেশনে রয়েছেন আনোয়ারা বেগম (৫৫)। তিনি বিশনন্দী ইউনিয়নের দড়ি বিশনন্দী দক্ষিণপাড়া এলাকার হানিফ মিয়ার স্ত্রী এবং তার ছেলে আবদুল্লাহ-আল মামুন (৩০)। ডা: উত্তম কুমার দাশ গুপ্ত বলেন, আক্রান্তদের মধ্যে দুইজনের স্বাস্থ্যের বিষয়টি বিবেচনা করে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। তাদের স্বাস্থ্যের নীবিড় পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। আশা করছি খুব দ্রæত সময়ের মধ্যে তারা সুস্থ হয়ে বাড়িতে ফিরতে পারবেন। তিনি আরো বলেন, স্বাস্থ্য ও প:প: কর্মকর্তা ডা: সায়মা আফরোঝ ইভা আক্রান্তদের মধ্যে অন্য যারা রয়েছেন। তাদের শারীরিক বিষয়ে সার্বক্ষণিক খোঁজখবর নিচ্ছেন।

প্রসঙ্গত. আড়াইহাজার উপজেলায় এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে রয়েছেন কহিনুর (২৫)। তিনি উপজেলার ব্রাহ্মন্দী ইউনিয়নের প্রভাকরদীর পশ্চিমপাড়া এলাকার বাবুলের স্ত্রী। রানা (২২)। তিনি স্থানীয় বিশনন্দী ইউনিয়নের দয়াকান্দা পূর্বপাড়া এলাকার মৃত আব্দুল আউয়ালের ছেলে। ও নাতি হাবিবুল্লাহ (১)। রেজাউল (৩৫)। তিনি উপজেলার দুপ্তারা ইউনিয়নের বান্টিবাজার এলাকার মৃত হাজী আব্দুল সালামের ছেলে। তার স্ত্রী মুক্তা আক্তার (২৬) ও মা আয়েশা (৬০)। মেহের আলী (৫৭)। তিনি বান্টি এলাকার আবদুর রহমান ছেলে। নার্গিস আক্তার (২৮)। তিনি স্থানীয় দুপ্তারা ইউনিয়নের দড়িসৎভান্দি এলাকার আনোয়ারের মেয়ে। কবির (৬০)। তিনি দুপ্তারা ইউনিয়নের পাঁচগাও নয়াপাড়া এলাকার ওয়ারিশ মোল্লার ছেলে।

নিউজটি শেয়ার করুন...

Warning: A non-numeric value encountered in /home/narayang/public_html/wp-content/themes/Newspaper/includes/wp_booster/td_block.php on line 352