শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ০৬:৩৯ পূর্বাহ্ন

দেশে একটি মানুষও গৃহহীন থাকবে না-বস্ত্রমন্ত্রী

ডেস্ক নিউজঃ নারায়ণগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য, বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী (বীরপ্রতীক) বলেছেন, মুজিববর্ষে দেশের মানুষ গৃহহীন থাকবে না— সেই ঘোষণার বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে সরকার। এরই ধারাবাহিকতায় আগামীতে দেশে একটি মানুষও গৃহহীন থাকবে না।

বৃহস্প‌তিবার (২১ জানুয়ারি) সকা‌লে মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে ভূমিহীন ও গৃহহীনদের জন্য নি‌র্মিত ‘মু‌জিব বর্ষ ভি‌লেজ স্বপ্ননীড়’ আশ্রয়ন প্রকল্প প‌রিদর্শ‌ন ক‌রে সাংবা‌দিকদের তি‌নি এসব কথা বলেন। রূপগঞ্জ উপজেলার মুড়াপাড়ার দ‌ড়িকা‌ন্দি এলাকায় গৃহহীন ৪৯৮ পরিবারের জন্য দুই রুমের এসব সেমিপাকা ঘর নির্মিত হচ্ছে।

বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী বলেন, ‘এই আশ্রয়ণ প্রকল্প‌ প্রধানমন্ত্রীর এক যুগান্তকারী পদক্ষেপ। আমি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানাই, তিনি প্রথম পর্যায়েই নারায়ণগঞ্জ জেলার মধ্যে আমার নির্বাচনি এলাকাতেই সবচেয়ে বেশি ঘর বরাদ্দ দিয়েছেন। বঙ্গবন্ধু সারাজীবন দুঃখী মানুষের কল্যাণে কাজ করে গেছেন। তার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হা‌সিনা বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে ৬৯ হাজার ৯০৪টি গৃহহীন পরিবারকে ঘর দিয়ে প্রমাণ করলেন তিনি যোগ্য পিতার যোগ্য কন্যা। এ বাংলা তার নেতৃত্বেই বদলে যাচ্ছে।’

প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্য আশ্রয়হীন মানু‌ষের মু‌খে হা‌সি ফোটা‌নো উল্লেখ করে গোলাম দস্তগীর গাজী ব‌লেন, ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সু‌খি সমৃদ্ধ সোনার বাংলা বিনির্মাণ করতে চেয়েছিলেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেটি বাস্তবায়ন করতে বাংলাদেশকে ক্ষুধামুক্ত, দারিদ্রমুক্ত, সমৃদ্ধশালী দেশের কাতারে নিয়ে যেতে চান। তার অংশ হিসেবে আগামী ২৩ জানুয়ারি আশ্রয়ণ প্রকল্পের উদ্বোধনের মাধ্যমে আমরা আরও একধাপ এগিয়ে যাবো।’ এসময় ভূ‌মিহীন ও গৃহহীন‌দের জন্য ঘর উপহার দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হা‌সিনাকে ধন্যবাদ জানান তিনি।

বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী জানান, প্রধানমন্ত্রীর আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ এর আওতায় আবাসন প্রকল্পে ইতিমধ্যেই পানি, বিদ্যুৎ ও গ্যাস সরবরাহসহ সব নাগরিক সুবিধার ব্যবস্থা করা হয়েছে। দেশে কোনো গৃহহীন থাকবে না। পর্যায়ক্রমে সব গৃহহীনদের এ প্রকল্পের আওতায় আনা হবে।

এ‌ সময় উপ‌স্থিত ছি‌লেন- রূপগঞ্জ উপ‌জেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহ্ নুসরাত জাহান, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আফিফা খানসহ অনেকে।

রূপগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আফিফা খান বলেন, ‘বরাদ্দপ্রাপ্ত গৃহহীন ও ভূমিহীনদের তালিকা তৈরি করা হয়েছে। আগামী ২৩ জানুয়ারি সারাদেশে একযোগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক প্রকল্প উদ্বোধনের পরপরই স্বপ্ননীড়ের ঘরগুলো গৃহহীন ও ভূমিহীনদের মধ্যে হস্তান্তর করা হবে। বাথরুম, গোসলখানা, বারান্দাসহ দুই রুমের প্রতিটি আধাপাকা ঘরের নির্মাণ ব্যয় হয়েছে এক লাখ ৭১ হাজার টাকা।

নিউজটি শেয়ার করুন...

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Recent Comments

    © All rights reserved © 2023
    Design & Developed BY M Host BD