নারায়ণগঞ্জ ছাড়ছে ভিন্ন জেলার মানুষ

306

আবদুর রহিমঃ
ফাঁকা হতে শুরু করেছে নারায়ণগঞ্জ। নাড়ির টানে বাড়ি ফিরছে নারায়ণগঞ্জে বসবাসরত বিভিন্ন অঞ্চলের মানুষ। জীবিকার তাগিদে স্বজনদের ছেড়ে দিনের পর দিন নারায়ণগঞ্জে পড়ে থাকা মানুষগুলো যে যার মতো করে স্বজন-আপনজনদের কাছে ছুটছে। বাস,ট্রেন কিংবা লঞ্চ কানায় কানায় পরিপূর্ন। তারপরও মানুষ স্বজনদের কাছে ফিরতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। এদিকে ঈদের ছুটিতে ফাঁকা শহর এবং শহরবাসীর নিরাপত্তায় পুলিশের ছুটি বাতিল করেছে জেলা পুলিশ। ঈদের ছুটিতে পুরো নারায়ণগঞ্জকে নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা রাখতে পুলিশের ছুটি বাতিল করা হয়েছে বলে প্রশাসনের দায়িত্ব সূত্র নিশ্চিত করেছে। এছাড়া কোরবানীর ঈদ সুন্দর এবং শান্তিপূর্ন ভাবে পালন করতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা কাজ শুরু করে দিয়েছে। যে কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা রোধে পোষাকের পাশাপাশি সাদা পোষাকেও মাঠে রয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।

সরেজমিন পরিদর্শনে দেখাগেছে, নারায়ণগঞ্জ ছাড়ছে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের মানুষ। বাস,ট্রেন কিংবা লঞ্চে করে যে যার গন্তব্যে চলে যাচ্ছে। অনেকে স্বজনদের সাথে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে ঈদের ২/৩দিন আগে শহর ছেড়েছে। আজও অনেকে শহর ছাড়ছে। নানা করণে দেশের বিভিন্ন জেলার মানুষ নারায়ণগঞ্জে বসবাস করেন। ঈদ আসলেই মূলত এসব মানুষগুলো তাদের স্বজনদের কাছে ছুটে যান। এবারের ঈদেও এর ব্যত্যয় ঘটেনি। স্বজনদের কাছে যেতে মরিয়া হয়ে উঠেছে নারায়ণগঞ্জে বসবাসরত দেশের বিভিন্ন জেলার মানুষ।

অপরদিকে, ঈদের ছুটিতে শহরবাসীর নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে পুলিশের ছুটি বাতিল করেছে জেলা পুলিশ প্রশাসন। ঈদের আনন্দ নির্বিঘ্ন করতেই পুলিশের ছুটি বাতিল করা হয়েছে বলে পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ জানিয়েছেন। শহরের নিরাপত্তায় কয়েক স্তরের ব্যাষ্টুনি গড়ে তুলেছে পুলিশ ও র‌্যাব সদস্যরা। ঈদের ছুটিতে যে কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা রোধে পুলিশ ও র‌্যাব কাজ শুরু করে দিয়েছে। পোষাকের পাশাপাশি সাদা পোষাকেও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা কাজ করছে। এ ব্যাপারে ডিআইও-২ সাজ্জাদ রোমান জানান, ঘরমুখো মানুষের নিরাপত্তায় পুলিশের ১১শ ৪৭জন সদস্য সড়ক ও মহাসড়কে কাজ করছে। পোষাক এবং সাদা পোষাকে পুলিশের একাধিক টিম মাঠে কাজ করছে। পাশাপাশি নারায়ণগঞ্জবাসীর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পুলিশের ছুটি বাতিল করা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন...