শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১২:২৩ অপরাহ্ন

ফতুল্লায় এক মাসে ৫ খুন !

আবদুর রহিমঃ  ফতুল্লায় লাশের মিছিল দীর্ঘ হচ্ছে। হত্যা-গুপ্ত হত্যার ঘটনায় আতংকিত হয়ে পরেছে সাধারন মানুষ। এক মাসের ব্যবধানে ফতুল্লায় ৫ টি হত্যাকান্ডের ঘটনায় উদ্ধিগ্ন হয়ে পরেছে ফতুল্লাবাসী। যদিও বেশ কিছু হত্যাকান্ডের পর আসামীদের গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে থানা পুলিশ। কিন্তু তারপরও সাধারন মানুষের মতে, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতা কম থাকায় এসব হত্যাকান্ডের ঘটনা দিনে দিনে বৃদ্ধি পাচ্ছে। সাধারন মানুষ ও নিহতদের স্বজনদের অভিযোগ, যারা এসব হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত রয়েছে এদের বেশীর ভাগই কোন না কোন রাজনৈতিক দলের শেল্টারে থেকে গজিয়ে ওঠা ছিচকে সন্ত্রাসী। আর এসব নব্য সন্ত্রাসীদের তালিকা আইনশৃঙখলা বাহিনীর সদস্যদের কাছে নেই। যে কারনে এসব অপরাধীরা প্রকাশ্যে হত্যঅকান্ডের ঘটনা ঘটিয়ে চলেছে। এসব অপরাধীদের বিরুদ্ধে এখনি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া জরুরী বলে মনে করছেন সচেতন মহল।

অনুসন্ধানে জানাগেছে, নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ২৮ জুলাই ভোররাত সাড়ে ১২টায় ফতুল্লার দেওভোগ হাশেমনগর এলাকায় মো. শাকিল (৩০) নামে এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো ৬ জন। নিহত শাকিল দেওভোগ পূর্বনগর এলাকার মৃত আমান উল্লাহর ছেলে। আহত ছয়জনের মধ্যে তিনজনের নাম জানা গেছে। তারা হলেন শাওন, সজিব ও সুভাষ।

আহত সুভাষ জানান, রাত ১২টায় তিনি শহরের ২নং রেল গেইট এলাকা থেকেমোটরসাইকেলে বাংলাবাজার বাসায় ফেরার পথে দেওভোগ হাশেমনগর এলাকায় একদল মুখোশধারী যুবক পথরোধ করে তাকে এলোপাথাড়ি কোপায়। সেসময় আশপাশের লোকজন ছুটে আসলে তাদের অনেককে এলোপাথাড়ি কোপানো হয়। “কী কারণে তারা এভাবে কুপিয়েছে তা জানি না। দেওভোগের হত্যাকান্ডের রেশ না কাটতেই গত ১০ আগস্ট ফতুল্লার দেলপাড়া এলাকায় প্রকাশ্যে মাদক ব্যবসায়ীরা পিটিয়ে হত্যা কারে জুম্মন নামে আরেক মাদক ব্যবসায়ীকে। ঘটনার দিন দুপুর দেড়টায় পূর্ব দেলপাড়া এলাকায় এঘটনা ঘটে। জুম্মনকে স্থানীয়রা আশঙ্কাজনক অবস্থায় জুম্মনকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত জুম্মন কুতুবপুর ইউনিয়নের দেলপাড়া রঘুনাথপুর এলাকার কাইয়ূমের ছেলে।

জুম্মন হত্যাকান্ডের ৪৮ ঘন্টা না যেতেই ঈদের দিন ভোরে ফতুল্লার পাগলা রেলস্টেশন এলাকায় রাকিব (২২) নামের যুবককে কুপিয়ে হত্যা করেছে স্থানীয় সন্ত্রাসী গিয়ার মানিক ও তার সহযোগীরা। নিহত রাকিব ফতুল্লার নয়ামাটি মুসলিমপাড়া এলাকার মজিদ হাওলাদারের বাড়ির ভাড়াটিয়া নওশেদ বেপারীর ছেলে।

হত্যাকান্ডের সময় রাকিবের সঙ্গে থাকা বন্ধু আব্দুল্লাহ জানান, ভোর ৪টায় কেনাকাটা শেষ করে বাড়ি ফিরছিল রাকিব ও আবদুল্লাহ। তাদের বহন করা রিকশা পাগলা রেলস্টেশন এলাকায় আসলে একই এলাকার মানিক সহ ৪/৫ জন পথরোধ করে রিকশাটি আটকায়। তখন দুর্বৃত্তরা রাকিবকে চোর আখ্যায়িত করে ধাওয়া দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে।

অপরদিকে, গত ২১ আগস্ট ফতুল্লার পাগলা শাহিবাজার এলাকায় আবুল কালাম (৫০) নামে নৈশপ্রহরীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা কোন অপরাধমূলক কর্মকান্ড করতে আসলে নৈশপ্রহরী বাধা দেয়ায় এ ঘটনা ঘটেছে বলে ধারণা পুলিশের।

সর্বশেষ গত শুক্রবার রাতে ফতুল্লার দেওভোগে সন্ত্রাসীরা ছুরিকাঘাত করে হত্যা করেছে সোলেয়মান হোসেন অপু(২৮)নামক এক ইলেক্টিক মিস্ত্রিকে। ফতুল্লা মডেল থানা সীমান্তে দেওভোগ নাগবাড়ী মন্দির এলাকায় এ হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে। নিহত অপু ফতুল্লা থানার দেওভোগ তাতিপাড়া এলাকার আজিজ মিয়ার ভাড়াটিয়া রমজান মিয়ার পুত্র।

এ বিষয়ে ফতুল্লা থানার ওসি আসলাম হোসেন জানায়, এসব হত্যাকান্ডের ঘটনাগুলো বিচ্ছিন্ন ভাবে ঘটছে। তবে এসব অপরাধের সাথে জড়িত অপরাধীদের গ্রেফতার করা হয়েছে বা হচ্ছে। এছাড়া আগামীতে যাতে এমন ঘটনা না ঘটে সে ব্যাপারে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তৎপর রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন...

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Recent Comments

    © All rights reserved © 2023
    Design & Developed BY M Host BD