মেয়র আইভীর কাছে হোমিও ‍ওষুধ হস্থান্তর করলেন হোমিও চিকিৎসকরা

45
নারায়ণগঞ্জের খবর: হোমিওপ্যাথিক ডক্টরস লিগা বাংলাদেশ সোসাইটি ও ডাঃ জিয়াউর রহমান হোমিওপ্যাথিক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ৭ জুন রোববার বেলা ১১ টায় নারায়ণগঞ্জ সিটি কপোরেশন এর মেয়র ডাঃ সেলিনা হায়াত আইভী কাছে তার প্রতিষ্ঠানের কমরত ১৮০০ কমচারীকে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে হোমিওপ্যাথিক ঔষধ আসেনিক এ্যালবাম-৩০ হস্তান্তর করেন।
উক্ত মহতী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ডাঃ সেলিনা হায়াত আইভী বলেন, এ্যালোপ্যাথিক চিকিৎসা আর হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসক একে অপরের সম্পূরক। বিশ্বে কোভিট-১৯ প্রতিরোধে হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা আলোড়ন সৃষ্টি করেছে। এমনকি বাংলাদেশেও হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসায় করোনা আক্রান্ত বহু রোগী আমার জানামতে পজেটিভ থেকে নেকেটিভ হয়েছে। বিশেষ করে ঢাকা রাজার বাগ শতাধিক পুলিশ সদস্য এবং ঢাকা স্বামীবাগে অধশতাধিক ইসকন সদস্য  করোনা আক্রান্ত হয়ে হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসার মাধ্যমে পজেটিভ থেকে নেকেটিভ হয়েছে।
এমনকি ঢাকা মিরপুর হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসার আইসোলেশনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। আমি নিজে ও হোমিওপ্যাথিক ঔষধ সেবন করি।নারায়ণগঞ্জবাসীকেও বলছি হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা নেয়ার জন্য। তাই আমি চাই উক্ত সংগঠনের মাধ্যমে নারায়ণগঞ্জ সদর, বন্দর ও সিদ্ধিরগঞ্জ থানা ভিওিক এলাকায় হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসার ব্যবস্থা করার জন্য উপস্থিতি সকল চিকিৎসকদেরকে আহবান করেন এবং তার পক্ষ থেকে সবোপরি সহযোগীতা করবেন বলে মেয়র ডাঃ সেলিনা হায়াত আইভী।
এছাড়া তিনি নারায়ণগঞ্জবাসীর উদ্যোশে বলেন, কোভিড-১৯ প্রতিরোধে সকলকে সচেতন হতে হবে এবং মাস্ক পড়া বাধ্যতামূলক ব্যবহার করতে হবে। অপরদিকে ভবনের ছাদে থাকা টপে যেন পানি জমে না থাকে। সব সময় পরিস্কার রাখার নিদেশ দেন। অপরদিকে অনুষ্ঠানের উদ্বােধক হোমিওপ্যাথিক ডক্টরস লিগা বাংলাদেশ সোসাইটির সভাপতি ডাঃ মোঃ আশরাফুর রহমান বলেন, হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা হচ্ছে লক্ষণ ভিওিক চিকিৎসা। সুতরাং করোনা আক্রান্ত রোগীদেরকেও আমরা লক্ষণ ভিওিক অনুযায়ী চিকিৎসা দিয়ে বহু রোগী পজেটিভ থেকে নেগেটিভ হচ্ছে হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসার মাধ্যমে। আতংক হবার কারণ নেই ঘড়ে বসে না থেকে প্রাথমিক পযায়ে যদি চিকিৎসা নেয়া যায় তাহলে সহজেই আরোগ্য লাভ করা যায়। অনুষ্ঠানে আরাে উপস্থিত ছিল ডাঃ নজরুল ইসলাম খান,  ডাঃ এম জাহাঙ্গীর, ডাঃ মোঃ আবদুল্লাহ জাহিন, হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসক ঐক্য ফোরাম নারায়ণগঞ্জ এর সভাপতি ডাঃ মোঃ দেলোয়ার হোসেন, ডাঃ রোকেয়া বেগম, ডাঃ তারিকুল ইসলাম ও ডাঃ মোঃ ইয়াদউল্লাহ।
নিউজটি শেয়ার করুন...