নিদের্শের অপেক্ষায় আ’লীগ-ঘরছাড়া বিএনপি

16

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ১০ ডিসেম্বরকে সামনে রেখে বিএনপি যখন মামলা এবং গ্রেফতার আতঙ্কে দিক পার করছে তখন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা রাজপথে নামার প্রস্তুতি নিচ্ছে। দলের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী রাজপথ দখলে রাখার পরিকল্পনা রয়েছে বলে আওয়ামী লীগের একাধিক সূত্র জানিয়েছে।

বিএনপিকে রাজনীতির নামে কোন নৈরাজ্য করতে দেয়া হবে এ লক্ষ্যে আওয়ামী লীগ এবং অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা রাজপথে থাকবেন। এখন কেবল নিদের্শের অপেক্ষা। কেন্দ্রীয় কিংবা স্থানীয় শীর্ষ নেতাদের নিদের্শ পেলেই রাজপথে নেমে আসবে ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীরা।

ইতোমধ্যে বন্দরের এক সভা থেকে তারই ইঙ্গিত দিয়েছে মহানগর আওয়ামী লীগ এবং অঙ্গ সংগঠনের নেতারা।

বিশ্লেষকদের মতে, দুই দল রাজপথে অবস্থান নিলে সংঘাত অনিবার্য। প্রাণহানি সহ ভয়াবহ হয়ে উঠবে রাজপথ।

নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খোকন সাহা বলেছেন, বিএনপি সমাবেশের নামে দেশে নৈরাজ্য সৃষ্টি করতে চায়। জননেত্রী শেখ হাসিনা বেঁচে থাকতে তাদের এ স্বপ্ন পূরণ হবে না। ওরা যা ইচ্ছা তাই করবে-বলবে, এটা হতে পারে না। তিনি বলেন, ডিসেম্বর বিজয়ের মাস। আজ আমাদের আনন্দ উৎসব করার কথা। অথচ বেগম খালোদা জিয়ার সন্ত্রাসী বাহিনীর কারনে আমাদের রাজপথে নামতে হল। তারা আগুন সন্ত্রাস করেছিল আজ তারাই আবার গণতন্ত্রের কথা বলে। জিয়াউর রহমান বঙ্গবন্ধুর হত্যার সাথে জড়িত ছিল অথচ তারা গণতন্ত্রের কথা বলে। ১০ তারিখ যদি ওরা কোন নৈরাজ্য করতে চায় আজ থেকে প্রস্তুতি নেন। আমাদের নির্দেশের অপেক্ষা করবেন না। প্রতিরোধ গড়ে তুলবেন।

মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহ্ নিজাম বলেছেন, তারা নাকি ১০ তারিখে দেশ চালাবে। কে, খালোদা না তারেক। দুজনেই তো আসামি। একজন এতিমের টাকা মেরে খেয়েছে আরেকজন দেশের মানুষের টাকা মেরে খেয়েছেন যিনি খাম্বা তারেক হিসেবে পরিচিত। মানুষ এগুলো খায় না। এগুলো বিশ্বাস করলে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে টানা তিনবার দেশ পরিচালনার দায়িত্ব দিত না। তিনি বলেন, আজ বিজয়ের মাসে আমাদের স্মৃতিচারণ করার কথা। তবে কথা বলতে হচ্ছে ১০ তারিখ বিএনপির সমাবেশ। ওরা গণতন্ত্রের কথ বলে মানুষের অধিকারের কথা বলে। তারা কোন গণতন্ত্রের কথা বলে। তিনি বলেন, যারা এ জাতির বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে তাদের বর্জন করুন। এটা আপনাদের ইমানি দায়িত্ব। ২০১৩-১৪ সালে আপনারা কী করেছেন। সারা দেশে আগুন সন্ত্রাস করেছেন। ১৯৭১ সালে যেমন আপনারা বুদ্ধিজীবী হত্যা করেছেন সেভাবেই স্কুল কলেজে আগুন দিয়ে দেশকে মেধাশূন্য করতে চেয়েছেন। তিনি আরো বলেন, শামীম ওসমান যখন ডাক দিবেন বাঁশের লাঠি নিয়ে রাজপথ দখল করবো।

নিউজটি শেয়ার করুন...